চরম অবহেলার কারণে নারায়ণগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডে মৃত্যু

17
961
editorial daily star and transformation of sentences
editorial daily star and transformation of sentences

The Daily Star Editorial

************************
শিরোনাম: Deaths in Narayanganj fire caused by gross negligence

=চরম অবহেলার কারণে নারায়ণগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডে মৃত্যু;

Owners of the factory must be held liable
=কারখানার মালিকদেরকে অবশ্যই দায় নিতে হবে;
Prepared by: Md Mohiuddin

Writer: Translation for Competitive Exams.

Editor: মাসিক এডিটোরিয়াল নিউজ

************************
প্রথমে শব্দার্থগুলি জেনে নিই
=================
১। Deaths in Narayanganj fire-নারায়ণগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডে মৃত্যু;
২। caused by gross negligence-চরম অবহেলার কারণে;
৩। Owners of the factory-কারখানার মালিকদেরকে;
৪। must be held liable-অবশ্যই দায় নিতে হবে;
৫। It is hard to label-এটা বর্ণনা করা কঠিন;
৬। the painful deaths-বেদনাদায়ক মৃত্যু;
৭। of at least 52 workers and staff members-অন্তত ৫২ জন শ্রমিক ও কর্মচারীদের;
৮। in Thursday’s fire-বৃহস্পতিবারে;
৯। in the Hashem Foods factory in Narayanganj-নারায়ণগঞ্জের হাশেম ফুড ফ্যাক্টরিতে;
১০। a random accident-একেরপর এক দুর্ঘটনা;
১১। the result of gross negligence and violation of factory safety laws-কারখানা নিরাপত্তা আইনের চরম অবহেলা ও লঙ্ঘনের ফল;
১২। So far it has not been established yet-এখনও পর্যন্ত জানা যায়নি/নিশ্চিত হওয়া যায়নি;
১৩। what exactly caused the fire-অগ্নিকাণ্ডের প্রকৃত কারণ কী;
১৪। What we do know, however, is that-তবে আমরা যা জানি তাহলো;
১৫। the supervisor on the third floor-৪র্থ তলার সুপারভাইজর/তত্ত্বাবধায়ক;
১৬। told the workers-শ্রমিকদেরকে বলেছিল;
১৭। to stay on the floor-ফ্লরে অবস্থান করতে;
১৮। as the room was air-conditioned-কারণ রুম ছিল শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত;
১৯। and they were safe-এবং তারা নিরাপদ ছিল;
২০। when workers realised-শ্রমিকরা যখন বুঝতে পারলো;
২১। this was not the case-ব্যাপারটা তা ছিলনা;
২২। and tried to escape-এবং পালানোর চেষ্টা করেছিল;
২৩। they found the only exit locked-তারা দেখতে পায় বের হওয়ার একমাত্র সিড়ি/পথ তালাবদ্ধ;
২৪। Many of the employees-অনেক শ্রমিক;
২৫। went to the rooftops-ছাদে গিয়েছিল;
২৬। and jumped in sheer desperation-এবং শুধু শুধু বেপরোয়া হয়ে লাফ দিয়েছিল;
২৭। three of them dying in the attempt-চেষ্টা করতে গিয়ে তাদের মধ্যে ৩ জন মারা গেছে;
২৮। Just from the first reports of the disaster-দুর্ঘটনার প্রথম দিকের রিপোর্টগুলো থেকেই শুধু;
২৯। we have already learned enough to see-সংবাদ পেয়ে আমরা ইতোমধ্যে যথেষ্ট জেনেছি;
৩০। how little thought was given to the safety of employees-শ্রমিকদের নিরাপত্তা নিয়ে কীভাবে সামান্য চিন্তা করা হয়েছে/হয়েছিল:
৩১। According to officials in the fire department-ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন;
৩২। there was no fire escape exit-আগুন লাগলে বের হওয়ার কোনো সিড়ি ছিল না;
৩৩। the only staircase available was very narrow-একমাত্র সিড়িটাও ছিল অত্যন্ত সরু;
৩৪। and the only exit on the third floor of the building was locked-এবং ভবনের চতুর্থ তলার একমাত্র সিড়িটাও ছিল তালাবদ্ধ;
৩৫। From preliminary observations-প্রাথমিক পর্যবেক্ষণে;
৩৬। the fire department officials have said-ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তারা বলেছেন;
৩৭। there did not seem to be any fire-fighting equipment or any fire alarm system-কোনো ধরণের অগ্নি নির্বাপক যন্ত্র অথবা অগ্নি সংকেত পদ্ধতি ছিল বলে মনে হয়নি;
৩৮। The floors were full of flammable materials-ফ্লোরগুলো ছিল দাহ্য পদার্থে পরিপূর্ণ;
৩৯। such as cartons and paper rolls-যেমন কার্টুন ও পোর রোল;
৪০। as well as combustible materials-পাশপাশি সহজে দাহ্য পদার্থ;
৪১। such as oil, chemicals, poly packs, foil papers, and plastic bottles-যেমন, তেল, রাসায়নিক, পলিথিনের ব্যাগ, ফয়েল পেপার, এবং প্লাস্টিকের বোতল;
৪২। be a priority to make sure-নিশ্চিত করতে অগ্রাধিকার দেওয়া;
৪৩। at least the minimum level of safety measures-অন্তত নিরাপত্তা ব্যবস্থার ন্যূনতম পর্যায়;
৪৪। in case of a fire-অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটলে;
৪৫। the storage of such inflammable materials-এরুপ দাহ্য পদার্থের স্তুপ/জমা/সংরক্ষণ;
৪৬। It is appalling-এটা আতঙ্কজনক;
৪৭। how little owners of this factory value human lives-এই কারখানার মালিকদের কাছে জীবনের মূল্য কতটা কম;
৪৮। from their remarks to the media-গণমাধ্যমে তাদের মন্তব্য থেকে (জানা যায়);
৪৯। From the reports as well as the footage-রিপোর্ট এবং ফুটেজ থেকে;
৫০। it seems-মনে হয়েছে;
৫১। there were minors working in the factory-কারখানায় অনেক শিশু কর্মরত ছিল;
৫২। which violates the labor law-যা শ্রম আইনের লঙ্ঘন;
৫৩। But the reality is that-কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে;
৫৪। the pandemic has forced many poor families-মহামারি বাধ্য করেছে অনেক গরীব পরিবারকে;
৫৫। to send their children-তাদের সন্তানদেরকে পাঠাতে ;
৫৬। whose schools are closed-যাদের স্কুল বন্ধ;
৫৭। for all kinds of work just to be able to survive-শুধুমাত্র বেচে থাকার জন্য সব ধরণের কাজে;
৫৮। The owners of the factory have indicated-কারখানার মালিকরা জানিয়েছে;
৫৯। they didn’t know children had been employed-শিশুদের দিয়ে কাজ করানো হতো তা তারা জানেন না;
৬০। Is it not their responsibility to know?-এটা জানা কি তাদের দায়িত্ব নয়?
৬১। Isn’t it their moral obligation-এটা কি তাদের নৈতিক দায়িত্ব/বাধ্যবাধকতা নয়?
৬২। apart from the legal compliance-বৈধ সম্মতি ছাড়াও;
৬৩। to make sure that-নিশ্চিত করতে যে;
৬৪। the factories where so many employers are working-কারখানা যেখানে বহু কর্মচারী কাজ করছে/কর্মরত;
৬৫। have the minimum safety measures-ন্যূনতম নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকা;
৬৬। so that they can at least escape a fire or other disaster-যাতে তারা অন্তত অগ্নিকাণ্ড অথবা অন্যান্য দুর্ঘটনা থেকে পালাতে পারে;
৬৭। Should not these employers be held responsible for the exit door on the third floor being locked?-চতুর্থ তলার বের হওয়ার দরজা তালাবদ্ধ থাকার জন্য কি এসব নিয়োগকর্তাদেরকে দায়ী করা উচিত নয়?
৬৮। Of course they must-অবশ্যই তারা দায়ী; অবশ্যই তাদেরকে দায়ী করতে হবে;
৬৯। It is reprehensible that-এটা নিন্দনীয় যে;
৭০। after so many factory fire incidents-এত সংখ্যক অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার পর;
৭১। have cost lives-জীবনের খেসারত দিয়েছৈ;
৭২। in many cases-বেশিরভাগ ক্ষেত্রে;
৭৩। because of lack of safety measures-নিরাপত্তা ব্যবস্থার ঘাটতির কারণে;
৭৪। In most instances-অধিকাংশ ক্ষেত্রে;
৭৫। families of workers who have died -মারা যাওয়া শ্রমিকদের পরিবারগুলো;
৭৬। or workers who have been seriously injured-অথবা মরাত্মকভাবে আহত হওয়া শ্রমিকরা;
৭৭। do not get adequate or any compensation-পর্যাপ্ত অথবা কোনো ধরণের ক্ষতিপূরণ পায়না;
৭৮। nor justice in the form of punishment of those responsible-এমনকি দায়ী ব্যক্তিরাও কোনো শাস্তি পায়না;
৭৯। We hope that-আমরা আশা করি;
৮০। the three probe committees formed by various government bodies-সরকারের বিভিন্ন সংস্থা কর্তৃক গঠিত ৩টি তদন্ত কমিটি;
৮১। will come up with clear answers-কোনো স্পষ্ট জবাব দিতে পারবেনা/দিবেনা;
৮২। about how the fire started-কীভাবে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হলো সে ব্যাপারে;
৮৩। and why there were so many casualties-এবং কেন এত সংখ্যক হতাহতের ঘটনা ঘটেছিল;
************************
Prepared by: Md Mohiuddin
*****এবার মূল সম্পাদকীয়টি পড়ি*****
Deaths in Narayanganj fire caused by gross negligence
Owners of the factory must be held liable
************************
It is hard to label the painful deaths of at least 52 workers and staff members in Thursday’s fire in the Hashem Foods factory in Narayanganj as a random accident and not the result of gross negligence and violation of factory safety laws. So far it has not been established yet what exactly caused the fire. What we do know however, is that the supervisor on the third floor told the workers to stay on the floor as the room was air conditioned and they were safe and that when workers realised this was not the case and tried to escape, they found the only exit locked. Many of the employees went to the rooftops and jumped in sheer desperation, three of them dying in the attempt.
Just from the first reports of the disaster we have already learnt enough to see how little thought was given to the safety of employees. According to officials in the fire department, there was no fire escape exit, the only staircase available was very narrow and the only exit in the third floor of the building was locked. From preliminary observations the fire department officials have said there did not seem to be any fire-fighting equipment or any fire alarm system. The floors were full of flammable materials such as cartons and paper rolls as well as combustible materials such as oil, chemicals, poly packs, foil papers, and plastic bottles. So wouldn’t it be a priority to make sure that there are at least the minimum level of safety measures in case of a fire that would definitely spread given the storage of such inflammable materials?
It is appalling how little owners of this factory value human lives from their remarks to the media. From the reports as well as the footage it seems there were minors working in the factory which violates the labour law. But the reality is that the pandemic has forced many poor families to send their children (whose schools are closed) for all kinds of work just to be able to survive. The owners of the factory have indicated they didn’t know children had been employed. Is it not their responsibility to know? Isn’t it their moral obligation apart from the legal compliance, to make sure that the factories where so many employers are working, have the minimum safety measures so that they can at least escape a fire or other disaster? Should not these employers be held responsible for the exit door on the third floor being locked? Of course they must.
It is reprehensible that after so many factory fire incidents—Tazreen Fashion (122 deaths), KTS Composite (65 deaths), Tampaco Oil (36 deaths), to name a few—that have cost lives, in many cases because of lack of safety measures being in place, these horrific events continue. In most instances families of workers who have died or workers who have been seriously injured, do not get adequate or any compensation nor justice in the form of punishment of those responsible. We hope that the three probe committees formed by various government bodies will come up with clear answers about how the fire started and why there were so many casualties. But there is no question that the owners of the factory are responsible for gross negligence and complete apathy for the safety of their workers that led to so many deaths.
Prepared by: Md Mohiuddin

17 COMMENTS