?ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’ আপডেট—৩

30
718
বন্দরগুলোতে ৪ নম্বর সংকেত, সুপার সাইক্লোনে রূপ নিচ্ছে ‘ফণী
বন্দরগুলোতে ৪ নম্বর সংকেত, সুপার সাইক্লোনে রূপ নিচ্ছে ‘ফণী

▇ ০২ মে, ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ, বৃহস্পতিবার।
⦁ প্রকাশকাল বাংলাদেশ সময় ৭:১৮ অপরাহ্নে(PM)
✹ গুরুত্বপূর্ণ পোষ্ট।
——————————–

?ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’ আপডেট—৩
?ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’ আপডেট—৩


? গত ৪৮ ঘন্টায় প্রধানত উত্তরাঞ্চলের মধ্যে কিছু
আকস্মিক বৃষ্টির রিপোর্ট রয়েছে।
?
আমাদের পূর্বাভাস অনুযায়ী ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’ ভারতীয়
উপকূল ঘেঁষে উত্তর-পূর্ব দিকে গতিশীল রয়েছে।

পূর্ববর্তী অবস্থান থেকে প্রথমে উত্তর-পশ্চিম দিকে
ঝড়টি সরতে শুরু করে এরপর একই স্থানে দীর্ঘ
সময় স্থির থাকার পর প্রথমে উত্তর দিকে এবং পরবর্তী
সময়ে উত্তর-পূর্ব দিকে গতিশীল থেকে বাংলাদেশের
নিকটবর্তী হতে চলেছে।

ভারতীয় ভূ-খন্ডে ওড়িশার উপকূলবর্তী এলাকায়
ঝড়টির প্রথম আঘাত থাকবে আজ।
পরবর্তী পর্যায়ে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণাঞ্চল ও
বাংলাদেশের উপকূলবর্তী এলাকা।

ঝড়টি বর্তমানে হ্যারিকেনের শক্তিসম্পন্ন অতি প্রবল
ঘূর্ণিঝড় আকারে বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে।
ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৭৪ কি: মি: এর মধ্যে বাতাসের
একটানা সর্বোচ্চ গড় গতিবেগ(১ মিনিট স্থিতিকাল)
প্রায় ২২৫ কি:মি/ঘন্টা।
দমকা ও ঝড়ো হাওয়ার আকারে প্রায় ২৭৫ কি:মি:/
ঘন্টা পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে।

বাংলাদেশে ঝড়ের যথেষ্ট প্রভাব থাকবে।
এই আঘাতের পরবর্তী গতিপথের উপর ক্ষয়-ক্ষতির
পরিমান নির্ভর করবে।

খুলনা, বরিশাল ও চট্রগ্রাম এই তিন বিভাগই
ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে।
বেশী ঝুঁকিতে আছে খুলনা বিভাগ এবং পরপরই
বরিশাল বিভাগ।
ঝড়টির আয়তন বা আকৃতি অনেক বড় এবং
শক্তিশালী হওয়ায় খুলনা, বরিশাল ও চট্রগ্রাম এই
তিন বিভাগেই যথেষ্ট প্রভাব বিস্তারের সম্ভাবনা
আছে।

উপকূলবর্তী জেলাসমূহে ক্ষয়-ক্ষতির সম্ভাবনা থাকায়
প্রত্যেকেরই প্রাথমিক প্রস্তুতি সম্পন্ন করা উচিত।
যদিও সামনে আরো আপডেট থাকবে।

ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’র প্রভাবে প্রায় নিশ্চিত ভাবেই দেশের
প্রায় সকল স্থানে ঝড়-বৃষ্টি থাকবে কিন্তু তীব্রতা আরো
দেরীতে জানা যাবে।

খুলনা ও তৎসংলগ্ন মংলা এবং পায়রা সমুদ্রবন্দরকে
৭ নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। চট্টগ্রাম
বন্দরকে ৬ নম্বর বিপদ সংকেত এবং কক্সবাজার সমূদ্র
বন্দরকে ০৪ (চার) নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারী সংকেত
দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

আজ বাংলাদেশ সময় সন্ধা ৬:০০(PM) টার
দিকে ঘূর্ণিঝড়টির কেন্দ্র থেকে খুলনা বিভাগীয়
জেলাসদর(২৭) পর্যন্ত দুরত্ব: ৮৬৫ কি:মি:।
বরিশাল জেলাসদর(৬) পর্যন্ত দুরত্ব: ৮১২ কি:মি:।
চট্রগ্রাম বিভাগীয় জেলাসদর(১০) পর্যন্ত দুরত্ব:
৯০০ কি:মি:।
কয়েক কি:মি: হেরফের হতে পারে।

✸ আজ দেশের আকাশে খন্ড খন্ড মেঘের উপস্থিতি
বৃদ্ধি পাবে এবং কিছু স্থানে আকস্মিক বৃষ্টির
সম্ভাবনাও থাকছে, শেষ রাতের অংশে বৃষ্টিপাত
কিছু বেশী হতে পারে।

? আজ সন্ধা ৬:৫০ মিনিটের চিত্রে কালো
স্থানসমূহে বিভিন্ন ঘনত্বের মেঘের স্তর দেখা
যাচ্ছে।
চিত্রে গোলকৃতি চিহ্নিত স্থানে ঘূর্ণিঝড়ের কেন্দ্র
রয়েছে, এবং ঘূর্ণীঝড়ের আই বা চোখ দেখা যাচ্ছে।

? নিজ নিজ এলাকার আবহাওয়া পরিস্থিতি
সম্পর্কে কমেন্টে উল্লেখ করুন।

? বেসরকারী গবেষণাকেন্দ্র থেকে প্রকাশিত
তথ্য।
——————————–
* ঢাকার সময় অনুযায়ী:—
* আগামীকাল সূর্যোদয়: ৫:২৩ মিনিটে।
* আগামীকাল সূর্যাস্ত: ৬:২৭ মিনিটে।
* আগামীকাল দিনের দৈর্ঘ্য:—
(১৩ ঘন্টা ০৩ মিনিট ৫২ সেকেন্ড)

30 COMMENTS